কুয়েটে মাটির নিচে মিললো গ্রেনেড, গুলি Reviewed by Momizat on . নিউজবাংলা২৪ডটনেট:: মঙ্গলবার খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) ক্যাম্পাস থেকে ৮১ রাউন্ড রাইফেলের গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। ক্যাম্পাসের পশ্চিম পাশে ন নিউজবাংলা২৪ডটনেট:: মঙ্গলবার খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) ক্যাম্পাস থেকে ৮১ রাউন্ড রাইফেলের গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। ক্যাম্পাসের পশ্চিম পাশে ন Rating: 0
You Are Here: Home » আঞ্চলিক » কুয়েটে মাটির নিচে মিললো গ্রেনেড, গুলি

কুয়েটে মাটির নিচে মিললো গ্রেনেড, গুলি

নিউজবাংলা২৪ডটনেট:: মঙ্গলবার খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) ক্যাম্পাস থেকে ৮১ রাউন্ড রাইফেলের গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। ক্যাম্পাসের পশ্চিম পাশে নবনির্মিত আইটি ট্রেনিং সেন্টারের সংযোগ রাস্তার মাটি নিচ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় এ গুলি উদ্ধার করা হয়। এ নিয়ে গত দুদিনে ডুমুরিয়া এবং খানজাহান আলী থানা পুলিশ মোট ৮৯০ রাউন্ড গুলি ও ১টি গ্রেনেড উদ্ধার করেছে। এ সময় সাড়ে ৭শ গ্রাম ওজনের ১টি গ্রেনেডও উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় লোকজন আরো ৩০ রাউন্ড গুলি মাটির ওপর ছড়িয়ে পড়ে থাকতে দেখে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে খবর দেয়। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করলে খানজাহান আলী থানার পুলিশ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ক্যাম্পাসে পৌছে। তারা নবনির্মিত আইটি ট্রেনিং সেন্টারের রাস্তার নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত এক্সক্যাভেটর মেশিন দিয়ে মাটি খুঁড়ে আরো ৮১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে।
এর আগে গত সোমবার ডুমুরিয়া উপজেলার থুকড়া গ্রামের দিনমুজুর সোহেল রানা ৮০৩ রাউন্ড গুলি ডুমুরিয়া বাজারের একটি ভাঙ্গড়ির দোকানে বিক্রি করার সময় পুলিশের হাতে আটক হয়।
আটকের পর সোহেল পুলিশকে জানান, সম্প্রতি আইটি ট্রেনিং সেন্টারের রাস্তার মাটির কাজ করার সময় গুলিগুলো পেয়ে গোপনে বিক্রি করতে এসেছিলো। পরবর্তীতে তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী গত সোমবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে পুলিশ কুয়েট ক্যাম্পাসের আইটি ট্রেনিং সেন্টারের উল্লিখিত স্থানে তল্লাশি চালিয়ে মাটির নিচে পরিত্যক্ত অবস্থায় সাড়ে ৭শ গ্রাম ওজনের ১টি গ্রেনেড ও ৬ রাউন্ড রাইফেলের গুলি উদ্ধার করে।
স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল গফুর বলেন, ১৯৭১ সালের যুদ্ধের সময় এখানে পাক বাহিনীর ক্যাম্প এবং ইটের স্তুপ ছিলো। সেই সময়ে তাদের ফেলে যাওয়া গুলি হয়তো মাটি কাটার সময় উঠে এসেছে।
খানজাহান আলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো লিয়াকত আলী বলেন, ডুমুরিয়া বাজারের ভাঙ্গাড়ির দোকানে বিক্রি করার সময় সোহেল রানাকে পুলিশ আটক করে। পরে ডুমুরিয়া থানা পুলিশের দেওয়া তথ্য মতে উল্লেখিত স্থানে গত দুদিনে দুই দফায় মাটি কেটে ৮৭ রাউন্ড গুলি ও ১টি গ্রেনেড উদ্ধার করা হয়েছে।
তিনি বলেন, উদ্ধারকৃত গ্রেনেড ও গুলি মুক্তিযুদ্ধকালীন নয়, আরো পরের। কারণ গুলিগুলো চায়নার তৈরি। পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করে এ মুহূর্তে কিছু বলা যাচ্ছে না। এ ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

About The Author

Number of Entries : 2616

Leave a Comment

Scroll to top