আমাকে ছোট জুতা দেওয়া হয়েছে বড় পা ঢুকানোর জন্য: মোস্তফা জব্বার – Reviewed by Momizat on . তথ্য-প্রযুক্তিবিদ মোস্তফা জব্বারকে বাংলাদেশ অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালার প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে উপরোক্ত কথাটি বলেন তিনি। পাশাপাশি তিনি বলেন, “সরকারের উচ্চ পর্যা তথ্য-প্রযুক্তিবিদ মোস্তফা জব্বারকে বাংলাদেশ অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালার প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে উপরোক্ত কথাটি বলেন তিনি। পাশাপাশি তিনি বলেন, “সরকারের উচ্চ পর্যা Rating: 0
You Are Here: Home » জাতীয় » আমাকে ছোট জুতা দেওয়া হয়েছে বড় পা ঢুকানোর জন্য: মোস্তফা জব্বার –

আমাকে ছোট জুতা দেওয়া হয়েছে বড় পা ঢুকানোর জন্য: মোস্তফা জব্বার –

mostofa jabba

তথ্য-প্রযুক্তিবিদ মোস্তফা জব্বারকে বাংলাদেশ অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালার প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে উপরোক্ত কথাটি বলেন তিনি।

পাশাপাশি তিনি বলেন, “সরকারের উচ্চ পর্যায়ে এই নীতিমালাটি বিভিন্ন কারণে চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছাতে পারছে না।”

“গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের অনলাইন গণমাধ্যম বিষয়ে অনলাইন সম্পর্কিত সব ধরনের স্টেক হোল্ডারদের সাথে অনেক মিটিং ও আলোচনা সভা করেছি, মতামত নিয়েছি; কিন্তু চূড়ান্ত পর্যায়ে এসে এসব নীতিমালা গ্রহনযোগ্যভাবে গুরুত্বসহকারে বাস্তবায়ন পর্যায়ে আসতে বিলম্ব হচ্ছে।”

“কারন হিসেবে যা বলা হচ্ছে তা আমার কাছে শতভাগ সমর্থনযোগ্য নয়। পাশাপাশি মরার উপর খাড়ার ঘাঁয়ের মতো মনে হচ্ছে।”

বলা হচ্ছে এই নীতিমালা যেন বিদ্যমান সম্প্রচার নীতিমালার আওতাদিন রাখা হয়। যা আমার কাছে “ছোট জুতায় বড় পা ঢুকানোর মত” কারন, সম্প্রচার নীতিমালা আর অনলাইন নীতিমালা একেবারেই ভিন্ন আঙ্গিনা।

সম্প্রচার বা টেলিভিশন মাধ্যেমে একটি কাঠামোগত ভিজিবিলিটি আছে এবং তার একটা বিশাল প্রাতিষ্ঠানিক ব্যাপ্তি আছে এবং তাদের বিশাল জনবল আছে।

সুতরাং সেসব প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি নিজস্ব ভঙ্গিমার নীতিমালা চলতে পারে বা থাকা উচিত। কিন্তু কখনও কখনও অনলাইন গণমাধ্যম সংবাদ প্রচারের

ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে এবং তার ব্যাপ্তি অনেক বিশাল আকার ধারন করে। এই মাধ্যমটির পরিচালনার ধরনটিও ভিন্ন হয়ে থাকে যা সম্প্রচার নীতিমার সঙ্গে একেবারেই অসামাঞ্জস্য।

তবে অনলাইনে কিছুটা সাম্প্রচারিক উপাদান থাকলেও কোন নীতিমালার আওতাধীন থাকার মত নয় এবং তার প্রচার মাধ্যমটা শুধুমাত্র অনলাইন কেন্দ্রিক।

ইতিমধ্যে অনলাইন গণমাধ্যম বিশাল পরিধি ধারন করেছে। বিশেষ করে বাংলাদেশে যার পরিধি অকল্পনীয়ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

যে কারণে এ মাধ্যমটির জন্য একটি নীতিমালা প্রয়োজন বলে অনুভব করেছি। এই নীতিমালা নিয়ে আমরা দীর্ঘদিন যাবৎ কাজ করে যাচ্ছি।

অনলাইন গণমাধ্যমের জন্য আলাদা কমিশন গঠন করারও প্রস্তাবও রেখেছি, যেন এই মাধ্যমটি একটি প্রাতিষ্ঠানিক রুপ নিতে পারে।

কিন্তু একটি বিষয় অপ্রিয় হলেও সত্য আমাদের দেশে ভালো কিছু করতে গেলে সবচেয়ে বেশি বাঁধার সম্মুখীন হতে হয়।

নীতিমালাটির ভবিষৎ নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি ইউরোবিডি নিউজকে জানান, “আমি সব সময় আশাবাদী একজন মানুষ, আমি বিশ্বাস রাখি এই সরকার সহসায় এই নীতিমালাটি পর্যালোচনা করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।”

“এবং সরকার এই বিশাল মাধ্যমটিকে একটি প্রাতিষ্ঠানিক পরিচয় দিয়ে সরকারিভাবে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার আওতায় নিয়ে আসবে।”

সুত্র ঃইউরোবিডি নিউজ

About The Author

Number of Entries : 76

Leave a Comment

Scroll to top