বিশ্ব রেডিও এ্যামেচার দিবস – ২০১৪ Reviewed by Momizat on . বাংলাদেশ এ্যামেচার রেডিও লীগ এর আয়োজনে পালিত হল বিশ্ব রেডিও এ্যামেচার দিবস - ২০১৪। সংগঠনটি দেশের রেডিও এ্যামেচারদের নিয়ে এক র‌্যালীর আয়োজন করে। শান্তিপুর্নভাবে বাংলাদেশ এ্যামেচার রেডিও লীগ এর আয়োজনে পালিত হল বিশ্ব রেডিও এ্যামেচার দিবস - ২০১৪। সংগঠনটি দেশের রেডিও এ্যামেচারদের নিয়ে এক র‌্যালীর আয়োজন করে। শান্তিপুর্নভাবে Rating: 0
You Are Here: Home » জাতীয় » বিশ্ব রেডিও এ্যামেচার দিবস – ২০১৪

বিশ্ব রেডিও এ্যামেচার দিবস – ২০১৪

10014966_10151974352561415_4331906016713833871_oবাংলাদেশ এ্যামেচার রেডিও লীগ এর আয়োজনে পালিত হল বিশ্ব রেডিও এ্যামেচার দিবস – ২০১৪। সংগঠনটি দেশের রেডিও এ্যামেচারদের নিয়ে এক র‌্যালীর আয়োজন করে। শান্তিপুর্নভাবে র‌্যালীটি বাংলাদেশ শিশু একাডেমি চত্বর থেকে শুরু হয়ে টিএসসি মোড়ে যেয়ে শেষ হয়। প্রায় ৫০ জন সদস্য এত উপস্থিত ছিলেন।

barl

এ্যামেচার রেডিও বা, হ্যাম রেডিও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত এক ধরনের টেকনিকাল হবি। বাস্তবিক অর্থে এটি খুবই ব্যয়বহুল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক এবং সৌখিন হবি। সমাজের বিভিন্ন পেশার লোকজন বিশেষ করে শিক্ষিত, কারিগরী বিষয়ে আগ্রহী ও জনসেবা করতে ইচ্ছুক প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তিগন এতে যোগ দিয়ে থাকেন। এর অন্যতম প্রধান ৩ টি লক্ষ্য আছে – বেতার যোগাযোগের মাধ্যমে বিশ্বব্যপী বন্ধুত্ব / নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা, ইলেকট্রনিক্স ও ওয়্যারলেস কমিউনিকেশনের উপর স্বপ্রনোদিত হয়ে জ্ঞান অর্জন / প্রশিক্ষণ / গবেষণা / মানোন্নয়ন করা ও যে কোন দুর্যোগ কালীন সময়ে নিজস্ব বেতার যন্ত্রপাতির মাধ্যমে জনস্বার্থে দেশব্যপী বা, বিশ্বব্যপী দ্রুত বিকল্প বেতার যোগাযোগ স্থাপন করা। এভাবে সরকার ও জনগনকে সাহায্য করা। এটা সম্পুর্নভাবে রাজনীতিমুক্ত, অলাভজনক, নিজ খরচে ও স্বেচ্ছাশ্রমভিত্তিক সামাজিক কার্যক্রম। বাংলাদেশে এর জন্য লাইসেন্স / অনুমোদন দিয়ে থাকে একমাত্র – বাংলাদেশ টেলিকম রেগুলেটরী কমিশন। তারা সাধারনতঃ ৫/৭ বছর পর পর পরীক্ষা নিয়ে থাকে।

১৮ ই এপ্রিল, আমাদের দেশের জন্য একটি আন্তর্জাতিক দিবস। সারা বিশ্বেই এটি পালিত হচ্ছে। যদিও এদেশে এর প্রচার খুবই কম। এর আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রক সংস্থা ওঅজট – ইন্টারন্যাশনাল এ্যামেচার রেডিও ইউনিয়ন এর ৮৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে অর্থাৎ ওয়ার্ল্ড এ্যামেচার রেডিও ডে – ২০১৪ উপলক্ষে এবছরের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল – ”এ্যামেচার রেডিও: বেতার যোগাযোগের দ্বার”। র‌্যালীটি শেষ হবার পর দিবসটি সামনে রেখে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা হয়। যাতে বক্তব্য রাখেন অত্র সংগঠনের সভাপতি জনাব আনোয়ার ইসলাম। তিনি বলেন সরকারের সঠিক সাহায্য সহযোগীতা পেলে আমরা দেশের যে কোন দুর্যোগ কালীন সময়ে আমাদের বেতার যন্ত্রপাতি দিয়ে বিকল্প যোগাযোগ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করে আমরা সমাজকে সহযোগীতা করতে পারবো। তবে এজন্য আমাদের আরো যন্ত্রপাতি প্রয়োজন। আরো সদস্য বাড়াতে হবে। এজন্য তিনি আশা প্রকাশ করেন বিটিআরসি বিগত রেডিও এ্যামেচার বিষয়ক পরীক্ষার রেজাল্ট শীধ্রই প্রকাশ করে আরো নতুন রেডিও এ্যামেচার সৃষ্টিতে সহায়তা করে থাকবে। আরো ঘনঘন পরীক্ষা নেওয়া ও ফায়ার সার্ভিসের মাধ্যমে পুরনো সদস্যদের দুর্যোগ মোকাবেলার প্রশিক্ষণ দেওয়া। বিভিন্ন সরকারী কর্মকান্ডে অন্তভুক্ত করা সহ জাতীয় যাদুঘরে গবেষণার জন্য জায়গা প্রদান করার মাধ্যমে এ্যামেচার রেডিওর আরো বিকাশ লাভ করানো।এছাড়া বিদেশী রেডিও এ্যামেচারদের এদেশে এসে ডিএক্সিং করার ব্যপারে সহযোগীতা পাওয়ার আশা প্রকাশ করেন. এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করতে পারেন www.barl.org

About The Author

Number of Entries : 8

Leave a Comment

Scroll to top